শুক্রবার, ০৩ এপ্রিল ২০২০, ১২:৩২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কামারখন্দে কর্মহীন সি.এন.জি চালকদের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ উল্লাপাড়া প্রেসক্লাবে মাস্ক ও সাবান দিলেন পূর্ণিমাগাঁতী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান কামারখন্দে আওয়ামীলীগ নেত্রীর উদ্যোগে সচেতনতা মূলক লিফলেট, মাস্ক ও সাবান বিতরণ তানভীর ইমাম এমপির সহযোগিতায় কর্মহীন মানুষের কাছে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিলেন ইউপি চেয়ারম্যান কামারখন্দে জামতৈল কলেজপাড়া সোসাইটির উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কামারখন্দে করোনা সচেতনতা কার্যক্রমে প্রশংসিত পাইকশা ওয়েলফেয়ার সোসাইটি ঘড় বন্দি অসহায় মানুষের পাশে সাবেক ইউ.পি চেয়ারম্যান কামারখন্দে অসহায় পরিবারে মাঝে চাল বিতরণ কামারখন্দে এমপির অর্থায়নে অসহায় পরিবারকে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ কামারখন্দে কমছে না জনসমাগম
ঘুরে আসুন ফয়’স লেক

ঘুরে আসুন ফয়’স লেক

ফাইল ছবি

চট্টগ্রামের ফয়’স লেকের নাম শোনেননি এমন মানুষ পাওয়া যাবে না নিশ্চয়ই। তবে ঘুরে দেখেছেন কি সবাই? হয়তো সবাই যেতে পারেননি। তাই সময় করে একবার ঘুরে আসুন ফয়’স লেক থেকে। জানা এবং দেখার সমন্বয়ে দারুণ অনুভূতি সৃষ্টি হবে আপনার।

নামকরণ
ফয়’স লেক কোনো প্রাকৃতিক হ্রদ নয়। ১৯২৪ সালে আসাম বেঙ্গল রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধানে খনন করা হয়। তখন এটি ‘পাহাড়তলি লেক’ নামে পরিচিত ছিল। পরে প্রকৌশলী মি. ফয়’র নামানুসারে ‘ফয়’স লেক’ রাখা হয়।

 

অবস্থান
লেকটি চট্টগ্রামের পাহাড়তলি রেলস্টেশনের অদূরে খুলশি এলাকায় অবস্থিত। ৩৩৬ একর জমির ওপর নির্মিত হ্রদটি পাহাড়ের একপ্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্তের মধ্যবর্তী একটি সরু উপত্যকায় আড়াআড়িভাবে বাঁধ নির্মাণের মাধ্যমে সৃষ্ট।

বৈশিষ্ট্য
এখানে শিশুদের জন্য রাইডের ব্যবস্থা রয়েছে। বড়দের জন্য রয়েছে পাহাড় ও হ্রদের মনোমুগ্ধকর পরিবেশ। রয়েছে অরুণাময়ী, গোধূলি, আকাশমণি, মন্দাকিনী, দক্ষিণী এবং অলকানন্দা নামের হ্রদ। হ্রদের পাড়ে সারি সারি নৌকা। থাকার জন্য বিভিন্ন রিসোর্ট রয়েছে।

 

প্রবেশ মূল্য
ফয়’স লেকে প্রাপ্তবয়স্কদের প্রবেশ মূল্য ২০০ টাকা। আর প্রতি শিশু ১৮০ টাকা। তবে তিন ফুটের কম উচ্চতার শিশুদের জন্য ফ্রি।

খোলা
রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত খোলা। এছাড়া শুক্রবার ও শনিবার সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত খোলা থাকে।

 

যেভাবে যাবেন
দেশের যেকোন অঞ্চল থেকে সড়ক, নৌ বা রেলপথে চট্টগ্রাম শহরে চলে আসুন। এরপর চট্টগ্রাম শহরের জিইসি মোড় থেকে সিএনজি বা রিক্শায় যাওয়া যায়। শহর থেকে রিকশা পেতে খুব বেগ পেতে হয় না।

যেখানে থাকবেন
হোটেল আগ্রাবাদে থাকতে পারেন। এছাড়া অনেক হোটেল ও রিসোর্ট রয়েছে। লেকের গেটেও রিসোর্টের ব্যবস্থা রয়েছে।





© All rights reserved © 2018 somoybangladesh24.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com