মঙ্গলবার, ১১ অগাস্ট ২০২০, ১০:০৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
অসহায়দের বন্ধু মুরাদ খান ‌বিএনপি নেতা আলীমের মায়ের মৃত্যুতে স্থায়ী কমিটির সদস্য টুকুর শোক প্রকাশ সিরাজগঞ্জে বিএনপির উদ্যোগে বন্যা ও নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় মাঝে ত্রান বিতরণ সিরাজগঞ্জ জজকোর্টের সাবেক পিপি রেজাউল করিম তালুকদারের কবর যিয়ারত করে দোয়া করলেন বিএনপির নেতৃবৃন্দ সিরাজগঞ্জ কামারখন্দে মহাসড়কে বাসের ধাক্কায় ১ জন নারীর মৃত্যু কামারখন্দে ঈদের আনন্দ দিগুণ করতে ভেলা বাইচ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত কামারখন্দে আউশ মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত কোরবানীর বর্জ্য পরিশোধন অভিযানে মুরাদের বাবা কামারখন্দে বন্যা কবলিত এলাকায় ত্রাণ বিতরণ করলেন এমপি মুন্না সিরাজগঞ্জ অনলাইন স্কুলের পাঠদান কার্যক্রম চলছে
উল্লাপাড়ায় জহুরা মহিউদ্দীন খান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

উল্লাপাড়ায় জহুরা মহিউদ্দীন খান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক:  

সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় জহুরা মহিউদ্দীন খান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক ফজলে করিম মিঠুর বিরুদ্ধে দুর্নীতি অভিযোগ উঠেছে । বিদ্যালয়ের অন্য শিক্ষকেরাও তার দুর্নীতির কারণে অতিষ্ঠ । বিষয়টির তদন্ত দাবি করেছে জনগণ । শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রক্ষার জন্য সরব হচ্ছেন এলাকাবাসী ।

অনুসন্ধানে জানা গেছে , ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি এডভোকেট সিমকী ইমাম খানের সরলতার সুযোগ নিয়ে ক্ষমতার অপব্যবহার করেন প্রধান শিক্ষক ফজলে করিম মিঠু । ।বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ার ৮০ দিন পূর্বে খসড়া ও চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রস্তুত করার জন্য ম্যানেজিং কমিটির সভা ও রেজুলেশন করতে হয় মর্মে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ আছে। কিন্তু তিনি ম্যানেজিং কমিটি গঠনের জন্য কোন প্রকার রেজুলেশন বা মিটিং করেন নি । এমনকি এই প্রধান শিক্ষক খসড়া এবং চূড়ান্ত ভোটার তালিকায় সভাপতির কোন স্বাক্ষর নেন নি ।বরং স্বাক্ষর জাল করে ম্যানেজিং কমিটি গঠনের জন্য সকল কাগজপত্র দাখিল করেন ।

এ ব্যাপারে ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি এডভোকেট সিমকী ইমাম খানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ সব তথ্যের সত্যতা স্বীকার করেন ।

সিমকী ইমাম খান জানান, তার বাবা মরহুম হাসান ইমাম খান একজন প্রকৌশলী ছিলেন । তিনি তার মা জহুরা খান ও বাবা মহিউদ্দীন খানের নামে এই স্কুল প্রতিষ্ঠা করেন । সে কারণে পরিবারের দানকৃত এই স্কুলের প্রতি আলাদা একটা মমতা আছে তার । প্রধান শিক্ষক ফজলে করিম মিঠুকে অনেক বেশী বিশ্বাস করতেন তিনি । কিন্তু তার দুর্নীতির কিছু খবর পেয়ে প্রধান শিক্ষককে কারণ দর্শাতে বলায় তাকে নানা ধরণের হুমকি দেন প্রধান শিক্ষক । তখন তিনি বিধি অনুযায়ি কিছু ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হন ।

সিমকী ইমাম খান বলেন , বিধি বিধান না মেনে প্রধান শিক্ষক নিজের সুবিধার জন্য তার পছন্দের লোকদের নিয়ে ম্যানেজিং কমিটি গঠনের আবেদন করে।এছাড়া বিধি বহির্ভূত ভাবে ম্যানেইজিং কমিটির রেজুলেশন ছাড়া বিদ্যালয়ের একটি টিনের ঘর ও গাছ বিক্রি করেছেন । তিনি দীর্ঘদিন যাবত কোন বিল ভাউচার স্বাক্ষর করান নি এবং আড়াই লক্ষ টাকার একটি এফডিআর ছিল সেটা ভেঙে ৫০ হাজার টাকা স্কুলে জমা করেছেন এবং ২ লক্ষ টাকার ঠিকমতো হিসাব দেখাতে পারেন নাই । বিভিন্ন সময়ে বিভিন্নভাবে স্কুলের অর্থ আত্মসাৎ করে আসছেন ।





© All rights reserved © 2018 somoybangladesh24.Com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com